fbpx
খুলনা

ডুমুরিয়ায় শোলমারি গেটের মুখে বালি বোঝাই বলগেট : পানি নিষ্কাশনে বাঁধা

শেখ মাহতাব হোসেন ডুমুরিয়া খুলনাঃ ডুমুরিয়ায় শোলমারি গেটের মুখে বালি বোঝাই বলগেট : পানি নিষ্কাশনে বাধা।

অতি বৃষ্টিতে খুলনার ডুমুরিয়া অঞ্চল যখন প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা ঠিক সেই মুহুর্তে বৃহস্পতিবার শোলমারি ১০ ভেন্টের স্লুইস গেটের মুখে বালি ভর্তি একটি বলগেট আড়াআড়ি করে রেখেছে খুলনার এক বালি ব্যবসায়ি। এতে ভাটায় পানি নিষ্কাশনে ব্যাপক বাঁধা সৃষ্টি হচ্ছে।

আরও পড়ুন- করোনা রোধে ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ওসির নানামুখী কর্মকান্ড

জানা যায়, উপজেলার রংপুর, গুটুদিয়া ও ডুমুরিয়াসহ বিল ডাকাতির পানি নিষ্কাশনের একমাত্র পথ শোলমারি নদী।

এই নদী দিয়ে কাজিবাছা নদীতে পানি প্রবাহিত হয়। চলতি বর্ষা মৌসুমে অতি ভারি বর্ষনে এলাকার নিম্নাঞ্চল ইতিমধ্যে প্লাবিত হতে শুরু করেছে।

এই সময় শোলমারি ঘাটে ১০ ভেন্টের গেটের মুখে জনৈক এক বালি ব্যবসায়ীর বালি বর্তি বলগেট দাড় করে রাখা হয়েছে।

যার কারনে ভাটায় সঠিক ভাবে পানি নিষ্কাশনে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে।

এ বিষয়ে বালি ব্যবসায়ী এনায়েত হোসেন বলেন বলগেটটি ভাটায় বেঁধে গেছে। জোয়ারে সরিয়ে নিবো।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আবদুল ওয়াদুদ বলেন, আমি ওই বালি ব্যবসায়ীর সাথে কথা বলেছি সে আমাকে বলেছে দ্রুত সরিয়ে নিচ্ছি।

Dokkhinbongo ads

অতি বৃষ্টিতে খুলনার ডুমুরিয়া অঞ্চল যখন প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা ঠিক সেই মুহুর্তে বৃহস্পতিবার শোলমারি ১০ ভেন্টের স্লুইস গেটের মুখে বালি ভর্তি একটি বলগেট আড়াআড়ি করে রেখেছে খুলনার এক বালি ব্যবসায়ি। এতে ভাটায় পানি নিষ্কাশনে ব্যাপক বাঁধা সৃষ্টি হচ্ছে।

জানা যায়, উপজেলার রংপুর, গুটুদিয়া ও ডুমুরিয়াসহ বিল ডাকাতির পানি নিষ্কাশনের একমাত্র পথ শোলমারি নদী।

এই নদী দিয়ে কাজিবাছা নদীতে পানি প্রবাহিত হয়। চলতি বর্ষা মৌসুমে অতি ভারি বর্ষনে এলাকার নিম্নাঞ্চল ইতিমধ্যে প্লাবিত হতে শুরু করেছে।

আরও পড়ুন- প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের আশ্রয়ণ প্রকল্পে দুর্নীতি সহ্য করা হবে না

আরো পড়ুনঃ “মাস্ক পড়ুন, সুস্থ থাকুন” রোহিতা ইউনিয়ন বাসীকে বললেন যুবলীগের সভাপতি ও চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রভাষক লিটন

এই সময় শোলমারি ঘাটে ১০ ভেন্টের গেটের মুখে জনৈক এক বালি ব্যবসায়ীর বালি বর্তি বলগেট দাড় করে রাখা হয়েছে।

যার কারনে ভাটায় সঠিক ভাবে পানি নিষ্কাশনে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে।

এ বিষয়ে বালি ব্যবসায়ী এনায়েত হোসেন বলেন বলগেটটি ভাটায় বেঁধে গেছে। জোয়ারে সরিয়ে নিবো।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আবদুল ওয়াদুদ বলেন, আমি ওই বালি ব্যবসায়ীর সাথে কথা বলেছি সে আমাকে বলেছে দ্রুত সরিয়ে নিচ্ছি।

ফেসবুকে সর্বশেষ নিউজ পেতে এড হোন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে দক্ষিণবঙ্গ

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button